ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে পড়ে আছি কেন

Share Now:

কাল ইন্ডাস্ট্রির একজন বড়ভাই আমাকে জিগেস করলেন ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে পড়ে আছি কেন এত বছর ধরে, অন্য সিএমেস নাকি ডেভেলপার সংকটে দাড়াইতেই পারতেছে না। কথাটা একটু সত্য টু বি অনেস্ট।

আমি কেনো ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে পড়ে আছি?

এটা ওপেন সোর্সঃ জাস্ট ফ্রি সেইজন্য না, এটা আক্ষরিক অর্থেই একটা কমিউনিটি বিল্ড সফটওয়্যার। এভাবে চিন্তা করেন, গুগল এন্ড্রয়েড এ হাত দেবার আগে লিনাক্স ছিলো গিকদের। এখন পর্যন্ত গিকদের হাতেই আছে, আমি হলফ করে বলতে পারি, পৃথিবীতে লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম এর থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইউজার বেশী। দুটাই ওপেন সোর্স সেই হিসেবে উদাহারন দেয়া।

কমিউনিটিঃ এইযে ওয়ার্ডপ্রেস বাংলাদেশ কমিউনিটি টা, এটা জাস্ট বাংলা যারা যানেন তাদের জন্য, পুরো পৃথিবীতে এরকম কত হাজার কমিউনিটি আছে সুধু ফেসবুকেই। এর বাইরে ফোরাম গুলো, লাখ লাখ ব্লগ যাদের নিশ ওয়ার্ডপ্রেস। ওয়ার্ডপ্রেস একটা মানুষের থেকে অনেক বেশী বড় হয়ে গেছে। উদাহারন দেই, এমন শেষ কবে হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে আপনি কোন প্রবলেমে পড়েছেন যেটার সমাধান পান নি? খুব রেয়ার হবার কথা, অন্যদিকে একটা সার্ভার সফটওয়্যার “সাইবার প্যানেল” সেটা নিয়ে যেই সমস্যাই গুগল করি, ওদের ফোরামে সেই সমস্যা টা কেউ পোস্ট করছে, সেটার লিংক আসে, উত্তর নাই। ওয়ার্ডপ্রেসে? গুগলেও উত্তর না থাকলে এই গ্রুপে পোস্ট করে সমস্যা সমাধান হয় নাই কার, হাত তোলেন।

ফ্লেক্সিবিলিটিঃ কে জানি সেদিন এখানেই পোস্ট করছিলো, হ্যা, ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে কনজিউমার লেভেল প্রডাকশনে করা যায় না এমন কিছু নাই। সোশাল মিডিয়া বানাবেন? ওয়ার্ডপ্রেস। ফোরাম? ব্লগ? নিউজ? কোন মিডিয়া সাইট? উত্তর জানেন, ওয়ার্ডপ্রেস। ভাইরে আমি প্রিন্ট অন ডিমান্ড সাইট বানাইলে রুটেও দেখেন গিয়া ওয়ার্ডপ্রেস লাগায় রাখছি। এখন এমন অভ্যাস হইছে, মার্কেটপ্লেসে কেউ ওয়ান পেইজ ল্যান্ডিং পেইজ চাইলেও আমি আগে ডাবলিউপি দেই, তারপর ডিজাইন নিয়ে চিন্তা। অভ্যাস হয়ে গেছে, এন্ড অভ্যাস টা মন্দ না। ইভেন সার্ভার বিলিং টাইপ কিছু বানানো যাবে কিনা সেই ধান্দায় আছি, হলে গিটহাবে ফ্রি আপ দিবো, প্যারা নাই, চিল। এভাবে সুধু আমি ভাবি না, ম্যাক্সিমাম ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডেভেলপার ই ভাবেন। থিমফরেস্টে যত থিম দেখেন, ম্যাক্সিমাম গুলো কোন এজেন্সীর বানানো, তাদের কর্মচারীদের বেতন দিতে হয়, তারা টাকা নেন। এর বাইরে ওয়ার্ডপ্রেসে ফ্রি থিম কতগুলো আছে এক্সাক্ট হিসাব কারো কাছেই নাই। অফিশিয়াল স্টোরে না থাকলে বাইরে নিজের সাইটে দিয়ে রাখছে।

আপাতত আর কোন কারন আসতেছে না মাথায়। আমি সম্ভবত এডিক্টেড , আমি একা না এইটাই ভরসা, আমার সাথে কয়েক লাখ লোক এডিক্টেড ❤

একটু দুঃখঃ

১। কেমনে সার্চ করে সেইটা তো শিখেন। প্রবলেম ফেইস করলে সেটার সমাধান ইন্টারনেটে কোথাও না কোথাও আছে, খুজলে তো আর প্রশ্ন করা লাগে না। এখন আপনি যদি এমন প্রবলেম ফেইস করেন যেটা আগে কারো সাথে হয় নাই, আপনি অসম্ভব লাকি এবং রেয়ার। অভিনন্দন ভাই, আমাকে সমস্যা টা দেন, দেখি

২। ভুল প্রশ্ন করাঃ বেশীরভাগ সময় প্রশ্ন দেখি ” কোন প্লাগীন দিয়ে এমন করা যায়”। আপনার প্রশ্ন টা ভুল, আপনি প্রশ্ন করবেন “কিভাবে এটা করা যায়” । প্লাগীনের উপর ডিপেন্ডেন্সী কমান, বিশ্বাস করেন, প্লাগীন গুলো কোন এলিয়েন ভাষা দিয়ে বানানো না, খুব সিম্পল বিষয়, লাইক একটা ইমেজের উপরে হোভার ইফেক্ট দেয়া কি পোস্টের নিচে রিলেটেড পোস্ট লাগানো এগুলোর জন্য ও আলাদা আলাদা প্লাগীন। এই গতকাল রাতেই, সার্ভারে একটা সাইটে লোড দেখলাম হাই, পারমিশন নিয়ে ভিতরে ঢুকে দেখি একটা পোর্টফোলিও সাইটে গুনে গুনে ২৮ টা প্লাগীন একটিভ।

বিশ্বাস করেন একটা ওয়েব সার্ভার চাপ পছন্দ করে না, আপনার সাইট ই স্লো হবে, কারো কিচ্ছু হবে না। কোডিং শুরুতেই করতে হবে না, এটলিস্ট কোড তো কপি পেস্ট করা যায়, এটা চুরি না ! একটা চ্যালেঞ্জ নেন, উকমার্স তো লাগে, একটা ক্যাশ প্লাগীন লাগেই, আর একটা সিকুরিটি প্লাগীন ধরলাম। আর কোন প্লাগীন ছাড়া একটা সাইট বানানো কি সম্ভব? যদি উত্তর হ্যা হয়, তাহলে সিম্পলী প্লাগীনের আইলসেমী কেন ভাউ?

৩। থিম কাস্টমাইজেশনঃ এটা নিয়েই সবার আগ্রহ। আসছে বাজারে দুই চ্যাম্পিওন, ভিজুয়াল কম্পোজার আর এলিমেন্টর। ভাইরে ভাই, এগুলো ছাড়া সাইট ডিজাইন করা যায়, মানুষ করে, করে খায়। ড্রাগ এন্ড ড্রপ তো শপিফাই তেই করা যায়, আপনেরে কারো কেনো লাগবে? ড্রাগ এন্ড ড্রপ স্কিল নিয়ে সর্বোচ্চ ফাইভারে কয়েক ডলার আসতে পারে, সর্বোচ্চ বলছি, এর উপরে কোথাও যাইতে পারবেন না। কোন এজেন্সী আপনারে চায় না, কোন আইটি ফার্ম আপনেরে চায় না। আপনারে নিয়ে তারা কি করবে। সৌভাগ্য বা দুর্ভাগ্যক্রমে এক লোকাল এজেন্সীর ইন্টারভিউ বোর্ডে বসছিলাম, একটা বক্স বানায় চাইছিলাম ফাকা পেইজে ডান পাশে, ফিক্সড থাকবে। পারে নাই রে ভাই, সে বলে “এক্সপার্ট”। এমন এক্সপার্ট এই লাইনে করে খাইতে পারবে না ভাই, ফ্রিল্যান্সার আম জাম কলার মত মানুষরে ধোকাই দিবে হাইয়েস্ট।

কোন উদ্দেশ্য ছাড়াই লিখতেছি। বেসিকে ফোকাস দেন। বেসিক, আবার বেসিক। HTML, CSS এর মত বেসিক ঝড়ঝড়া করে ফেলেন। তারপর জাভাস্ক্রিপ্ট এর বেসিক গুলো। এগুলো শিখতে কাউকে টাকা দিতে হয় না, দয়া করে দেবেন ও না। ভাইরে ইউটিউব আছে এখন আপনাদের, কোন ফিক্সড চ্যানেল ফলো না করে সব দেখেন, সবার থেকেই কিছু না কিছু শেখার আছে। সিম্পলী মাথায় রাখেন, ডাক্তার দের যেমন সারাজীবন পড়তে হয়, আপনারেও পুরা জীবন শিখতে থাকা লাগবে। প্রযুক্তি বদলাবে, আপগ্রেড হবে, সাথে আপনিও। ক্যারিয়ার দাঁড়ায় যাবে ইনশাআল্লাহ ভাই।

আমার কথা গুলা আমার একার না, অনেকের। একটূ এদিক ওদিক হতে পারে, মতের মিল অমিল হতে পারে, আমার তথ্যের এদিক সেদিক হতে পারে। বাট আমাদের কমন দিক একটাই, WORDPRESS নামের একটা CMS রে আমরা ভালোবাসি। আমরা বিশ্বাস করি কোড কবিতার মত, CODE IS POETRY ❤

© Shimul Shahriar


Share Now:
× Hello!